Login | Register

মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা: কিতাব ফিতন

মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা গ্রন্থের কিতাব ফিতান অধ্যায়ের বাংলা অনুবাদ। ৬০০ হাদিসের মাঝে প্রথম ১০০ টার অনুবাদ সম্পুর্ন হয়েছে। বাকিগুলোর কাজ চলছে।
Double clicking on an arabic word shows its dictionary entry
হাদিস - ২৮
হুজাইফা রা: লোকদের বলছেন,
: তখন তোমাদের কি অবস্থা হবে যখন তোমরা দ্বীনের ব্যপারে এরকম উদার হয়ে যাবে, যেমন এক মহিলা কবুল বলার পর উদার হয়ে যায়। তার কাছে যে আসে তাকে মানা করে না?

: আমরা জানি না।

: কিন্তু ওয়াল্লাহ! আমি জানি। তোমরা সেদিন থাকবে অক্ষম আর অসৎ হবার মাঝে।

ঐ কওম থেকে এক লোক বললেন,

: এর অক্ষমতাকে ঘৃনা করে তা থেকে দূরে থাকতে হবে।

হুজাইফা রা: তখন ঐ লোকের গায়ে কয়েকবার আঘাত করলেন। এর পর বললেন,

: যেভাবে তুমি এ থেকে দূরে থাকলে। যেভাবে তুমি এ থেকে দূরে থাকলে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৩৮ ]
___________________________________
বুঝা যাচ্ছে: আঘাত গুলো ঠেকাতে সে যেমন অক্ষম হয়েছিলো, সেরকম অক্ষম তখন মানুষ হয়ে যাবে।
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٣٨
حدثنا عبد الله بن نمير قال حدثنا الصلت بن بهرام عن منذر بن هوذة عن خرشة عن حذيفة قال : كيف أنتم إذا انفرجتم عن دينكم كما تنفرج المرأة عن قبلها لا تمنع من يأتيها ، قالوا : لا ندري ، قال : لكني والله أدري ، أنتم يومئذ بين عاجز وفاجر ، فقال رجل من القوم : قبح العاجز عن ذاك ، قال : فضرب ظهره حذيفة مرارا ، ثم قال : قبحت أنت ، قبحت أنت.
হাদিস - ৭১
উমর রা: আবি মুসা রা: কে লিখে পাঠান,
স্বভাবতঃ মানুষ তাদের সুলতানকে অপছন্দ করে। তাই আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাই আমার আর তোমার মাঝে ঘৃনা আসা থেকে,
দুনিয়া দ্বারা প্রভাবিত হওয়া থেকে,
মনের ইচ্ছার অনুসরন করা থেকে।

কাবিলাগুলো একটা অন্যটার বিরুদ্ধে লাগতে যাচ্ছে।
এটাই হলো অহংকার যে শয়তান থেকে আসে।
এরকম হলে: তখন তলোয়ার তলোয়ার, কতল কতল হবে।
তারা বলবে: হে ইসলামের পরিবার, হে ইসলামের পরিবার।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৮১ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٨١
حدثنا محمد بن فضيل عن عطاء بن السائب عن أبي البختري قال : كتب عمر إلى أبي موسى : إن للناس نفرة عن سلطانهم ، فأعوذ بالله أن تدركني وإياكم ضغائن محمولة ودنيا مؤثرة وأهواء متبعة ، وإنه ستداعي القبائل ، وذلك نخوة من الشيطان ، فإن كان ذلك فالسيف السيف ، القتل القتل ، يقولون : يا أهل الاسلام ! يا أهل الاسلام.
হাদিস - ৭৩
উমর রা: বলেছেন,
যে তার গোত্রের জন্য গর্বিত হলো সে অংগ কামড় দিয়ে চুষলো।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৮৩ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٨٣
حدثنا وكيع عن عمران عن أبي مجلز قال : قال عمر : من اعتز بالقبائل فاعضوه أو فامضوه.
হাদিস - ৭৫
আবি সালেহ বলেছেন,
যে বললো: হে ওমুকের বংশধর!
তবে সে আগুনের শাস্তির দিকে ডাকলো।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৮৫ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٨٥
حدثنا وكيع عن مسعر عن سهل أبي الاسد عن أبي صالح قال : من قال : يا آل بني فلان ، فإنما يدعو إلى جثاء النار.
হাদিস - ৭৭
আব্দুল্লাহ রা: বলেছেন,
শিগ্রই উপেক্ষা করা হবে এবং ঘটনার পূনরাবৃত্তি হবে।
তখন তুমি ধীরে চলবে এবং ভালোর অনুসরন করবে।
খারাপ রাষ্ট্রপ্রধানের মাঝে যতটুকু ভালো আছে, সেটার।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৮৭ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٨٧
حدثنا أبو خالد الاحمر عن الاعمش عن خيثمة قال : قال عبد الله : إنها ستكون هنات وأمور مشبهات ، فعليك بالتؤدة فتكون تابعا في الخير خير من أن تكون رأسا في الشر.
হাদিস - ৭৯
জাইদ বিন থাবিত রা: বলেছেন,
রাসুলুল্লাহ ﷺ একবার বললেন,
আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাও প্রকাশ পাওয়া আর গোপন থাকা ফিতনা থেকে।

আমরা বললাম,
আমরা আশ্রয় চাইছি আল্লাহর কাছে, প্রকাশ পাওয়া আর গোপন থাকা ফিতনা থেকে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৮৯ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٨٩
حدثنا ابن علية عن الجريري عن أبي نضرة عن أبي سعيد الخدري قال : حدثنا زيد بن ثابت عن رسول الله (ص) قال : (تعوذوا بالله من الفتن ما ظهر منها وما بطن ، قلنا : نعوذ بالله من الفتن ما ظهر منها وما بطن).
হাদিস - ৮১
ইবনে মাসউদ রা: আমাদের এগিয়ে নিয়ে চললেন। এর পর কাদিসিয়ার রাস্তায় নামলেন। বুস্তান শহরে প্রবেশ করলেন। উনার হাজত পূর্ন করলেন। এর পর উনি ওজু করলেন এবং মুজার উপর মসেহ করলেন। এর পর বের হলেন। উনার দাড়ি থেকে ফোটা ফোটা পানি পড়ছিলো।

আমরা উনাকে বললাম,
: আমাদের সমাধান দিন। মানুষ ফিতনাতে পড়ে যাচ্ছে, এই দিকে আমরা আপনার সাক্ষাৎ পবো নাকি পাবো না সেটা জানি না।

উনি বললেন,
: আল্লাহকে ভয় করো। এবং সবর কর। যতক্ষন না বিপদ চলে যায়। অথবা অসৎ লোকদের থেকে পরিত্রান পাও। আর তোমাদের উপর হুকুম জামাতের সংগে থাকা। কারন আল্লাহ মুহাম্মদ ﷺ এর উম্মতকে পথভ্রস্টতার উপর জামাতবদ্ধ করেন না।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৯১ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٩١
حدثنا أبو أسامة قال حدثنا الاعمش عن المسيب بن رافع عن بشير بن عمرو
قال : شيعنا ابن مسعود حين خرج ، فنزل في طريق القادسية فدخل بستانا ، فقضى الحاجة ثم توضأ ومسح على جوربيه ثم خرج وإن لحيته ليقطر منها الماء ، فقلنا له : اعهد إلينا فإن الناس قد وقعوا في الفتن ولا ندري هل نلقاك أم لا ، قال : اتقوا الله واصبروا حتى يستريح بر أو يستراح من فاجر ، وعليكم بالجماعة فإن الله لا يجمع أمة محمد على ضلالة.
হাদিস - ৮৩
রাসুলুল্লাহ ﷺ উনার হুজুরাত থেকে বের হলেন এবং বললেন:
আগুন জ্বালানো হয়েছে।
ফিতনা এসেছে যেন এটা রাতের অন্ধকার টুকরা।
আমি যা জানি তোমরা যদি তা জানতে, তবে তোমরা হাসতে কম, কাদতে বেশি।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৯৩ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٩٣
حدثنا أبو أسامة عن زائدة عن الاعمش عن أبي سفيان عن عبيد بن عمير قال : خرج رسول الله (ص) إلى أهل الحجرات فقال : (سعرت النار وجاءت الفتن كأنها قطع الليل المظلم ، لو تعلمون ما أعلم لضحكتم قليلا ولبكيتم كثيرا).
হাদিস - ৮৫
হুজাইফা রা: আমাদের বললেন,
: তখন তোমাদের কি হবে যখন আল্লাহ তায়ালা উম্মতে মুহাম্মদিকে ﷺ নির্দেশনা ছাড়া করে দেবেন?
এক লোক বললো,
: আমারা অস্বিকার করলেও উনি দেয়া বন্ধ করে দেন না। আর আল্লাহ উম্মতে মুহাম্মদকে ﷺ নির্দেশনা ছাড়া করে দেবেন?
: আল্লাহর কাছে মশার পাখা সমান দামও যার নেই, সেও যখন উনার উত্তরাধিকার পায় সেটা দেখেছো? উম্মতে মুহাম্মদি ﷺ কে আল্লাহ নির্দেশনা ছাড়া করে দেবেন ঐ দিনে এটি কি এখন বিশ্বাস হয়?
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৯৫ ]
___________________________________
উত্তরাধিকার: রাজত্বের উত্তরাধিকার।
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٩٥
حدثنا أبو أسامة عن مجالد عن أبي السفر عن رجل من بني عبس قال : قال لنا حذيفة : كيف أنتم إذا ضيع الله أمر أمة محمد (ص) ، فقال رجل : ما تزال تأتينا بمنكرة ، يضيع الله أمر محمد ؟ قال : أرأيتم إذا وليها من لا يزن عند الله جناح بعوضة : أفترون أمر أمة محمد ضاع يومئذ.
হাদিস - ৮৭
আবি বুরদাহ বলছেন,
মুহাম্মাদ ইবনে মুসলেমা রা: এর ঘরে গিয়ে আমি বললাম,
: আল্লাহ আপনার উপর রহম করুন। এই সময় আপনি ঘরে আছেন। আপনি কেন মানুষের কাছে গিয়ে সৎ কাজের আদেশ আর অসৎ কাজের নিষেধ করছেন না?

উনি বললেন:
রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন,
অতি সত্বর ফিতনা, বিভাজন আর দ্বিমত দেখা দিবে। এরকম হলে তুমি তোমার তলোয়ার নিয়ে উহুদ পাহাড়ে চলে যাবে। এর পর এটা মারতে থাকবে যতক্ষন না তলোয়ার ভেঙ্গে যায়। এর পর বাসায় বসে থাকবে যতক্ষনা না তোমার কাছে কোনো অপরাধীর হাত অথবা মৃত্যুর লিখনি আসে।

এখন এটা হয়েছে। এজন্য আমাকে রাসুলুল্লাহ ﷺ যা করতে বলেছেন সেটা করেছি।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৯৭ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٩٧
حدثنا يزيد بن هارون قال أخبرنا حماد بن سلمة عن ثابت بن زيد عن أبي بردة قال : دخلت على محمد بن مسلمة فقلت له : رحمك الله ! إنك من هذا الامر بمكان ، فلو خرجت إلى الناس فأمرت ونهيت ؟ فقال : إن رسول الله (ص) قال : (إنها ستكون فتنة وفرقة واختلاف ، فإذا كان ذلك فأت بسيفك أحدا فاضربه حتى تقطعه ثم اجلس في بيتك حتى تأتيك يد خاطئة أو منية قاضية) ، فقد وقعت وفعلت ما قال لي رسول الله (ص).
হাদিস - ৮৯
আব্দুল্লাহ বিন আমির উনার পিতা থেকে বর্ননা করছেন:
রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন:

যে মারা গেলো কিন্তু সে কারো নেতৃত্ব মেনে চলতো না, তবে সে জাহেলিয়াতের মৃত্যু বরন করলো। আর যে এই বন্ধন করে ভঙ্গ করলো, সে ওজর খুজে পাবে না।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৪৯৯ ]
___________________________________
শাসকদের বায়াত দেয়া আর ভঙ্গ করা সম্পর্কে বলা হচ্ছে।
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٤٩٩
حدثنا علي بن حفص عن شريك عن عاصم عن عبد الله بن عامر عن أبيه قال : قال رسول الله (ص) : (من مات ولا طاعة عليه مات ميتة جاهلية ، ومن خلعها بعد عقده إياها فلا حجة له).
ولا طاعة عليه : أي ولا بيعة في رقبته والمقصود لا إمام له.
خلعها : أي خلع البيعة.
হাদিস - ৯১
সালমান বিন রাবী বলেছেন:
উমর রা: বলেছেন,
: শিগ্রই আমির আর কর্মিদের অবির্ভাব হবে। তাদের নৈকট্য হবে ফিতনা। তাদের থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া হবে কুফর।

আমি বললাম,
: আল্লাহু আকবার! আরেকবার বলেন হে আমিরুল মু'মিনিন। আমি বুঝতে পরি নি।

উনি আবার একই কথা বললেন।

সালমান বিন রাবী বলেন,
: আল্লাহ বলেছেন, ফিতনা কতলের থেকেও খারাপ, সুরা বাকারা - ১৯১। আর ফিতনা আমার কাছে কতলের থেকে প্রীয়।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫০১ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٠١
حدثنا أبو أسامة قال حدثنا ابن جريح عن هارون بن أبي عائشة عن عدي بن عدي عن سلمان بن ربيعة عن عمر قال : إنها ستكون أمراء وعمال صحبتهم فتنة ومفارقتهم كفر ، قال : قلت : الله أكبر ، اعد علي يا أمير المؤمنين ! فرجت عني ، فأعاد عليه ، قال
سلمان بن ربيعة : قال الله * (والفتنة أشد من القتل) * والفتنة أحب إلي من القتل.
سورة البقرة من الآية (191).
হাদিস - ৯৩
হুজাইফা রা: বলেছেন,
রাসুলুল্লাহ ﷺ আমাদের উদাহরন দেখিয়েছেন:
এক, তিন, পাচ, সাত, নয়, এগার। এর পর এর থেকে উনি এক ব্যখ্যা করেছেন। এবং বাকিগুলো সম্পর্কে চুপ ছিলেন। এর পর উনি বলেন,
: একটা কওম ছিলো দুর্বল আর দরিদ্র। এরা যুদ্ধ করে এমন কওমের সাথে যারা সুদক্ষ ও আক্রমনাত্বক।
তারা মুখোমুখি হয়। তাদেরকে কাজে লাগায়। তাদের উপর চাপিয়ে দেয়।
তাই তাদের রব তাদের উপর অসন্তুস্ট হয়।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫০৩ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٠٣
حدثنا أبو أسامة عن الاجلح عن قيس بن أبي مسلم عن ربعي عن حذيفة قال : ضرب لنا رسول الله (ص) أمثالا واحدا وثلاثة وخمسة وسبعة وتسعة وأحد عشر ، وفسر لنا منها واحدا وسكت عن سائرها ، فقال : (إن قوما كانوا أهل ضعف ومسكنة فقاتلوا قوما أهل حيلة وعداء ، فظهروا عليهم فاستعملوهم وسلطوهم فأسخطوا ربهم عليهم).
হাদিস - ৯৫
সাইদ বিন জুবাই রা: কে জিজ্ঞাসা করা হলো,

: হে আবু আব্দুলুল্লাহ! মানুষের ধ্বংশ হবার আলামত কি?

বললেন,
: যখন তাদের উলামাগন ধ্বংশ হয়ে যায়।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫০৫ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٠٥
حدثنا أبو أسامة قال حدثنا ثابت بن زيد قال أنبأنا هلال بن خباب أبو العلاء قال : سألت سعيد بن جبير ، قلت : يا أبا عبد الله ! ما علامة هلاك الناس ؟ قال : إذا هلك علماؤهم.
إذ يكون فيهم عندها جهلاء يدعون العلم فيفتون بغير معرفة.
হাদিস - ৯৭
মাকহুল বলেছেন:
মালাহামা, কুসতুনতুনিয়া বিজয় আর দাজ্জালের বের হওয়ার মাঝে সাত মাস সময়।
চুক্তি হওয়া আর ভঙ্গ হওয়া মাঝেও একই সময়। একটা আরেকটার পর পর হবে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫০৭ ]
___________________________________
আরবী নোটে বলছে, এটা বর্ননাকারী "মাকহুলের" নিজের কথা। বর্ননাকারীদের কেউ এটা রাসুলুল্লাহ ﷺ এর কথা হিসাবে বর্ননা করেন নি।
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٠٧
حدثنا أبو أسامة قال حدثنا عبد الرحمن بن يزيد بن جابر عن مكحول قال : ما بين الملحمة وفتح القسطنطينية وخروج الدجال إلا سبعة أشهر ، وما ذاك إلا كهيئة العقد ينقطع فيتبع بعضه بعضا.
وهذا قول مكحول لم يرفعه أحد من رواته.
হাদিস - ১০১
আব্দুর রহমান বিন সুহার উনার পিতা থেকে বলেছেন:
রাসুলুল্লাহ ﷺ বলেছেন:
কিয়ামত হবে না যতক্ষন পর্যন্ত না গোত্রগুলো ধসে পড়ে।
এমন কি এক লোককে জিজ্ঞাসা করা হবে, তুমি কি অমুক বংশের?

বলেন,
: আমরা জেনেছি, আরবরা তাদের গোত্রে দিকে ডাকবে। আর অনারবরা তাদের এলাকার দিকে ডাকবে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫১১ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥١١
حدثنا أبو أسامة عن الجريري قال حدثنا العلاء عن عبد الرحمن بن صخار عن أبيه قال : قال رسول الله (ص) : (لا تقوم الساعة حتى يخسف بقبائل حتى يقال للرجل : من بني فلان) ، قال : فعرفت أن العرب تدعى إلى قبائلها ، وأن العجم تدعى إلى قراها.
হাদিস - ১১৯
আলী রা: বলেছেন
: আমি যেন দেখতে পাচ্ছি হাবশার সেই লোককে, টাক মাথা, চ্যপ্টা ছোটো কান, চিকন পা -- এর উপর বসে আছে এবং একে ভাঙ্গছে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫২৯ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٢٩
حدثنا إسحاق الازرق عن هشام عن حفصة عن أبي العالية عن علي قال : كأني أنظر إلى رجل من الحبش أصلع أصمع حمش الساقين جالسا عليها وهي تهدم.
হাদিস - ১২১
ইয়া'লি বিন আত্বা বলেছেন উনার পিতা থেকে:
আমি আব্দুল্লাহ বিন উমর রা: এর বাহনের লাগাম ধরে যাচ্ছিলাম।
উনি বললেন,
: তখন তোমাদের কি অবস্থা হবে যখন তোমরা বাইতুল্লাহকে ভেঙ্গে ফেলবে এমন ভাবে যে এর একটা পাথরের উপর একটা পাথরও থাকবে না?
: আমরা কি তখন ইসলামের উপর থাকবো?
: তোমরা ইসলামের উপরই থাকবে।
: এর পর কি হবে?
: এর পর এটাকে ইতিহাসে সবচেয়ে সুন্দর করে বানানো হবে। যখন তুমি দেখবে,
মক্কার ভেতর দিয়ে সুড়ঙ্গ খোড়া হয়েছে,
এবং এর দালানগুলো পাহাড়ের মাথা থেকে উচু হয়ে গিয়েছে,
তখন জানবে ঘটনার ছায়া তোমার উপর চলে এসেছে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫৩১ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٣١
حدثنا غندر عن شعبة عن يعلى بن عطاء عن أبيه قال : كنت آخذا بلجام دابة عبد الله بن عمرو فقال : كيف أنتم إذا هدمتم البيت ، فلم تدعوا حجرا على حجر ، قالوا : ونحن على الاسلام ؟ قال : وأنتم على الاسلام ، قال : ثم ماذا ؟ قال : ثم يبنى أحسن ما كان ، فإذا رأيت مكة قد بعجت كظائم ورأيت البناء يعلو رؤوس الجبال فاعلم أن الامر قد أظلك.
إن الامر قد أظلك : أي أن الساعة قد اقتربت.
হাদিস - ১২৩
আব্দুল্লাহ রা: এর কাছে এক লোক এসে জিজ্ঞাসা করলেন:
: আমরা কখন পথ ভ্রস্ট হবো?
: যখন তোমাদের এমন আমির হবে যাদের অনুসরন করলে তারা তোমাদের পথভ্রস্ট করবে। এবং তাদের আবাধ্যতা করলে তারা তোমাদের কতল করবে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫৩৩ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٣٣
حدثنا وكيع عن سفيان عن أبي حصين عن عبد الرحمن بن بشر قال : جاء

رجل إلى عبد الله فقال : متى أضل ؟ فقال : إذا كان عليك أمراء إن أطعتهم أضلوك ، وإن عصيتم قتلوك.
হাদিস - ১২৫
আবু হুরাইরা রা: বলেছেন:
আরবদের ধ্বংশ নিকটবর্তি এই খারাপ জিনিসটার কারনে -- যুবক ছেলেদের আমির হওয়া।
যদি তাদের আনুগত্য করে তবে তাদের আগুনে প্রবেশ করিয়ে দেবে।
আর যদি তাদের বিরোধিতা করে তবে তাদের গলা কেটে ফেলবে।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫৩৫ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٣٥
حدثنا غندر عن شعبة عن سماك عن أبي ربيع عن أبي هريرة قال ويل للعرب من شر قد اقترب : إمارة الصبيان ، إن أطاعوهم أدخلوهم النار ، وإن عصوهم ضربوا أعناقهم.
হাদিস - ১২৭
হুজাইফা রা: বলেছেন,
ফিতনার কাছে যে কেউ গেলে আমি তার ব্যপারে ভয় পাই।
শুধু মুহাম্মদ বিন মাসলামা রা: ছাড়া।

আমি শুনেছি রাসুলুল্লাহ ﷺ উনাকে বলেছেন: ফিতনা তোমার কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।
[ মুসান্নাফ ইবনে আবি শায়বা - ৩৬৫৩৭ ]
___________________________________
مصنف ابن أبي شيبة - ٣٦٥٣٧
حدثنا يزيد بن هارون قال أخبرنا هشام عن محمد قال : قال حذيفة : ما أحد تدركه الفتنة إلا وأنا أخافها عليه إلا محمد بن مسلمة ، فإني سمعت رسول الله (ص) يقول له : (لا تضرك الفتنة).

Execution time: 0.02 render + 0.00 s transfer.