Login | Register

নুয়াইম বিন হাম্মাদের: আল ফিতান

পশ্চিম দিক থেকে সূর্যোদয়

   

পশ্চিম দিক থেকে সূর্যোদয়

Double clicking on an arabic word shows its dictionary entry
হযরত ইয়াযীদ ইবনে শুরাইহ ও আমর ইবনে সালমান রাযিয়াল্লাহু আনহু এরা সকলেই বলেন যে, পশ্চিম দিক হতে একদিন সূর্য্য বিলম্বে উদিত হবে। আর সেদিন মানুষের অন্তরে যা থাকবে তার উপর তাকে মহর এটেঁ দেয়া হবে। আর সেদিন আমল, হিফয তথা সংরক্ষণতা উঠিয়ে নেয়া হবে। আর ফেরেশতাদের আদেশ দেয়া হবে যে, তারা যেন মানুষের কোন আমল না লিখে। আর সেদিন কিয়ামাতের সংগঠিত হওয়ার ভয়ে সূর্য্য ও চন্দ্র ভয়ে শংকিত হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৩৮ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٣٨
حدثنا الحكم بن نافع عن جراح عن أرطاة عن
كثير ابن مرة ويزيد بن شريح وعمرو بن سليمان
قالوا أخر طلوع الشمس من المغرب
يوم واحد قط فيومئذ يطبع على القلوب بما فيها وترفع الحفظة والعمل وتؤمر الملائكة
أن لا يكتبوا عملا وتفزع الشمس والقمر خوفا من قيام الساعة
হযরত যায়েদ ইবনে আবু ইতাব হতে বর্ণিত যে, তিনি হযরত আবু হুরাইরা রাযিয়াল্লাহু আনহু কে বলতে শুনেছেন যে, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন কিয়ামাততের পাঁচটি নিদর্শন রয়েছে। উক্ত নিদর্শনগুলো হতে প্রথম নিদর্শন কখন ঘটবে তা আমার জানা নাই। আর যখন উহার আলামত সমূহ আসবে তখন এমন ব্যক্তির ঈমান তাকে কোন উপকার দিবে না, যে ব্যক্তি উহার আগমনের পূর্বে ঈমান আনায়ন করে নাই। অথবা সে তার ঈমানের ভিতর পূণ্যতা উপার্জন করে নাই। পশ্চিম দিক হতে সূর্য্য উদয়, দাজ্জাল, ইয়াজুয মাজুয, ধোঁয়া, চতুস্পদ জন্তু।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৩৯ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٣٩
حدثنا سويد
بن عبد العزيز عن إسحاق بن أبي فروة عن زيد بن أبي عتاب
سمع أبا هريرة رضى الله
عنه يقول قال رسول الله صلى الله عليه وسلم خمسا لا أدري أيتهن أول الآيات وأيتهن
جاءت لم ينفع نفسا إيمانها لم تكن آمنت من قبل أو كسبت في إيمانها خيرا طلوع الشمس
من مغربها والدجال ويأجوج ومأجوج والدخان والدابة
হযরত ওহাব ইবনে মানবাহ রা, হতে বর্ণিত যে, তিনি বলেন সূর্য্যদয়টা হল কিয়ামাতের দশম আলামত। আর এটাই কিয়ামাতের শেষ আলামত। অতপর প্রত্যেক গর্ভধারীনি তার গর্ভ সম্পর্কে ভুলে যাবে। প্রত্যেক ধনবান ব্যক্তি তার মাল সম্পদ প্রত্যাখ্যান করবে। আর প্রত্যেক ব্যবসায়ী তার ব্যবসা হতে অন্যমনস্ক হয়ে যাবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪০ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٠
حدثنا أبو المغيرة عن
ابن عياش عن شيخ له
عن وهب بن منبه قال طلوع الشمس الآية العاشرة وهي آخر
الآيات ثم تذهل كل مرضعة عما أرضعت ويطرح كل ذي مال ماله ويشتغل كل تاجر عن تجارته
হযরত মাসরুক আল্লাহ তা’আলার বাণী ”যেদিন তোমার প্রতিপালকের কোন নিদর্শন আসিবে সেদিন তাহার ঈমান কাজে আসিবে না, যে ব্যক্তি পূর্বে ঈমান আনে নাই কিংবা যে ব্যক্তি ঈমানের মাধ্যমে কল্যাণ উপার্জন করে নাই। সূরা আনআ’ম। আয়াত- ১৫৮ (এর তাফসীর) সম্পর্কে হযরত আব্দুল্লাহ রাযিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণনা করেন যে, (উক্ত আয়াত হল, পশ্চিম দিক হতে সূর্য্যদয় হওয়া।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪১ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤١
حدثنا أبو معاوية عن الأعمش عن مسلم بن صبيح عن مسروق
عن عبد الله
في قوله يوم يأتي بعض آيات ربك لا ينفع نفسا إيمانها لم تكن آمنت من قبل [ أو كسبت
في إيمانها خيرا [ قال طلوع الشمس من مغربها
হযরত আব্দুল্লাহ রাযিয়াল্লাহু আনহু রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণনা করেন যে, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন ঈসা আলাইহিস সালাম ও তার সাথীদের কর্তৃক ইয়াজুয মা’জুয এর বিরুদ্ধের দোয়া কবুল করা হবে। অতপর তারা জীবিত থাকবে এমনকি পশ্চিম দিক হতে সূর্য্যদয়ের রাত্রে তারা সাড়া দিবে। অতপর তারা দাব্বাতুল আরদের অবির্ভাবের পর চল্লিশ বছর পর্যন্ত তারা সুখ শান্তি ও নিরাপদে জীবন ধারন করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪২ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٢
حدثنا أبو عمر عن ابن
لهيعة عن عبد الوهاب بن حسين عن محمد بن ثابت عن أبيه عن الحارث
عن عبد الله عن
النبي صلى الله عليه وسلم قال يستجاب لعيسى وأصحابه على يأجوج ومأجوج ثم يعيشوا حتى
يجبوا ليلة طلوع الشمس من مغربها وحتى يتمتعوا بعد خروج دابة الأرض أربعين سنة في
نعمة وأمن
হযরত আব্দুল্লাহ রাযিয়াল্লাহু আনহু রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণনা করেন যে, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন তোমাদের অল্প সংখ্যাক লোক ইয়াজুয মাজুযের পর জীবিত থাকবে। এমনকি সূর্য্য পশ্চিম দিক হতে উদিত হবে। অতপর যখন আল্লাহ তা’আলা উহার আলোকে আমাদের উপর ফিরিয়ে নিবেন এভাবে যে, সূর্য্য পূর্ব বা পশ্চিম দিক হতে উঠবে না। তখন তিনি বলবেন আমার তিরান্দাজে কার ঐ ব্যক্তি কে যার কোন অংশীদারিত্ব নেই? তিনি বলেন অতপর তারা আকাশ হতে একজন আহবানকারীর আহবান শুনবে। তাতে বলা হবে, হে ঐসমস্ত লোক যারা ঈমান আনায়ন করেছ, তোমাদের ঈমান গ্রহণ করা হয়েছে। আর তোমাদের থেকে আমল উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। আর ঐসমস্ত লোক যারা কুফুরী করেছ, তোমাদের থেকে তাওবার দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কলম জমে গেছে অর্থাৎ আমলনামা বন্ধ হয়ে গেছে। কিতাব মুছে গেছে। সুতরাং কোন একজনের থেকে তাওবা গ্রহণ করা হবে না। আর কোন ব্যক্তির ঈমানও গ্রহণ করা হবে না। তবে যারা উক্ত সময়ের পূর্বে ঈমান আনায়ন করেছে। ফলে উক্ত সময়ের পরে কোন মুমিন মুমিন ব্যতীত জন্ম গ্রহণ করবে না। কোন কাফের কাফের ব্যতীত জন্ম গ্রহণ করবে না। আর শয়তান সিজদায় পড়ে যাবে। আর সে ডেকে ডেকে বলবে, হে আমার প্রতিপালক! আমাকে আপনি যে জীব বস্তুকে এবং জড় বস্তুকে চান তাকে সিজদা করার জন্য আদেশ করুন। আর অন্যান্য শয়তান তার নিকট জমায়েত হবে। আর তারা বলবে, হে আমাদের নেতা! আমরা কাকে ভয় করবো? তখন সে বলবে, আমি আমার প্রতিপালকের নিকট কিয়ামাতের দিবস এবং নির্দিষ্ট সময়ের দিন পর্যন্ত সুযোগ চেয়েছিলাম। আর এই সূর্য্য পশ্চিম দিক হতে উদয় হয়েছে। আর এটাই হল নির্দিষ্ট সময়। সুতরাং আজকের পর আর কোন আমল নেই। আর সেদিন থেকে শয়তান প্রকাশ্য হয়ে পড়বে। এমনকি লোকজন বলবে, এইতো আমার সেই বন্ধু যে আমাকে ধোঁকা দিয়েছিল। সমস্ত প্রশংসা ঐ আল্লাহ তা’আলার জন্য যিনি তাকে অপদস্থ করেছেন। আর আমাকে তার থেকে দয়া করেছেন। আর মানুষ জ্বীন, শয়তানদের তাদের খাওয়া দাওয়া, পানাহার, তাদের জীবন, তাদের মৃত্য, প্রকাশ্য ভাবে দেখবে। দাব্বাতুল আরদ বাহির হওয়া পর্যন্ত শয়তান সিজদায় পড়ে কাদতে থাকবে। অতপর দাব্বাতুল আরদ শয়তানকে হত্যা করবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৩ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٣
حدثنا أبو عمر عن ابن لهيعة عن عبد الوهاب بن حسين عن محمد بن
ثابت عن أبيه عن الحارث
عن عبد الله عن النبي صلى الله عليه وسلم قال لا تلبثون
بعد يأجوج ومأجوج إلا قليلا حتى تطلع الشمس من مغربها فيقول من لا خلاق له ما نبالي
إذا رد الله ضوءه علينا من حيث ما طلعت من مشرقها أو مغربها
قال فيسمعون نداء
من السماء
يا أيها الذين آمنوا قد قبل منكم إيمانكم ورفع عنكم العمل ويا أيها
الذين كفروا قد أغلق عنكم أبواب التوبة وجفت الأقلام وطويت الصحف فلا يقبل من أحد
توبة ولا إيمان إلا من آمن من قبل ذلك فلا يلد بعد ذلك المؤمن إلا مؤمنا ولا الكافر
إلا كافرا ويخر أبليس ساجدا ينادي
إلهي مرني أن أسجد لمن شئت ولما شئت وتجتمع
إليه شياطين
فيقولون له يا سيدنا إلى من نفزع
فيقول إنما سألت ربي أن
ينظرني إلى يوم البعث وإلى يوم الوقت المعلوم وهذه الشمس قد طلعت من مغربها وهو
الوقت المعلوم فلا عمل بعد اليوم وتصير الشياطين ظاهرين في الأرض حتى
يقول
الرجل هذا قريني الذي كان يغويني والحمد لله الذي أخزاه وأراحني منه وينظر الناس
إلى الجن والشياطين أكلهم وشربهم ومحياهم ومماتهم فلا يزال إبليس ساجدا باكيا حتى
تخرج دابة الأرض فتقتله
হযরত ইবনে আব্বাস রাযিয়াল্লাহু আনহুমা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণনা করেন যে, তিনি বলেন যখন পশ্চিম দিক হতে সূর্যদয় হবে তখন মাতৃগণ তাদের সন্তান সম্পর্কে, প্রিয়জন তাদের ভালবাসার ফল সম্পর্কে ভুলে যাবে। আর প্রত্যেক ব্যক্তি তার নিকট যা আসবে তা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে যাবে। আর উহার পর কারো তওবা কবুল করা হবে না। তবে যে তার ঈমানের মধ্যে সৎকর্মকারী থাকবে। কেননা উহার পর তার আমলনামা (ছওয়াব) লেখা হবে যেমননাকি উহার পুর্বে লেখা হত। আর কাফেরদের উপর পরিতাপ ও দুঃখ দুর্দশা হবে। পশ্চিম দিক হতে সূর্য উদয় হওয়া থেকে যদি কোন ব্যক্তি ঘোড়া পায় তাহলে সে ঘোড়ায় উঠতে পারবে না। তার পূর্বেই কিয়ামাত সংগঠিত হয়ে যাবে। আর কিয়ামাত সংগঠিত হবে এমতবস্থায় যে, মানুষ বাজারে বাজার করতে থাকবে। বাজারে দুইজন ব্যক্তি কাপড় (ক্রয় বিক্রয়ের জন্য) ছড়াবে কিন্তু তারা তাদের ক্রয় বিক্রয় সম্পন্ন করতে পারবে না, আবার ভাজও করতে পারবে না। একজন মানুষ খানা খাওয়ার জন্য মুখে খানা তুলবে কিন্তু সে তা খেতে পারবে না। অতপর তিনি তেলাওয়াত করলেন, ”আর তাদের নিকট তা হঠাৎ করে আসবে। আর তারা তা বুঝতে পারবে না।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৪ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٤
حدثنا نوح بن أبي مريم عن مقاتل بن حيان عن
عكرمة
عن ابن عباس رضى الله عنهما عن النبي صلى الله عليه وسلم قال إذا طلعت
الشمس من مغربها تذهل الأمهات عن أولادها والأحبة عن ثمرات قلوبها فتشتغل كل نفس
بما آتاها ولا يقبل بعدها لأحد توبة إلا من كان محسنا في إيمانه فإنه يكتب له بعد
ذلك كما كان يكتب لهم قبل ذلك وأما الكفار فتكون عليهم حسرة وندامة لو ان رجلا أنتج
فرسا لم يركبه حتى تقوم الساعة من لدن طلوع الشمس من مغربها إلى أن تقوم الساعة
ولتقومن الساعة والناس في أسواقهم قد نشر الرجلان الثوب فلا يتبايعانه ولا يطويانه
وقد رفع الرجل لقمته إلى فيه فلا يطعمها ثم تلا ولتأتينهم بغتة وهم لا يشعرون
হযরত আব্দুর রহমান ইবনে মুয়াবিয়া রাযিয়াল্লাহু আনহু হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রাযিয়াল্লাহু আনহু কে বলতে শুনেছেন যে, একদিন সন্ধ্যা বেলায় চন্দ্র ও সূর্য্য আকাশের এক স্থানে একত্রিত হবে। আর তখন দিন বিশ বছর দীর্ঘ হবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৫ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٥
حدثنا ابن وهب عن ابن لهيعة قال أعطاني يزيد بن أبي حبيب
كتابا فيه عن عبد الرحمن بن معاوية
سمع عبد الله بن عمر يقول إن الشمس والقمر يجتمعان في السماء في منزلة بالعشي
فيكون النهار سرمدا عشرين سنة
হযরত ওহাব ইবনে জাবের রাযিয়াল্লাহু আনহু খাইওয়ানী থেকে বর্ণিত যে, তিনি বলেন আমি একবার আব্দুল্লাহ ইবনে আমর রাযিয়াল্লাহু আনহু এর নিকট ছিলাম। তখন তিনি আমাদের সাথে কথা বলা শুরু করলেন। অতপর বললেন যখন সূর্য্য ডুবে যায় তখন তা সালাম দেয় ও সিজদা করে। এবং পরবর্তী দিন উদিত হওয়ার জন্য অনুমতি প্রার্থনা করে। আর তাকে অনুমতি দেওয়া হয়। এমনকি যখন দিন হয় তা ডুবে যায়। অতপর বলে হে প্রতিপালক! নিশ্চই যাত্রা অনেক দুরের!! আর আমাকে অনুমতি না দেওয়া হত। আমি পৌছতাম না। তিনি বলেন অতপর আল্লাহ তা’আলা যতক্ষণ চান তা আটকে রাখবেন। অতপর সূর্য্যকে বলা হবে, তুমি যেখান থেকে ডুবেছ সেখান থেকে উদিত হও। সুতরাং সেদিন হতে কিয়ামাত পর্যন্ত কোন ব্যক্তির ঈমান তাকে উপকার করতে পারবে না, যে ব্যক্তি নিদর্শনের পূর্বে ঈমান আনায়ন করে নাই।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৬ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٦
حدثنا عبد الرزاق وابن ثور عن معمر عن
أبي إسحاق عن وهب بن جابر الخيواني قال
كنت عند عبد الله بن عمرو فأنشأ يحدثنا
فقال إن الشمس إذا غربت سلمت وسجدت واستأذنت فيؤذن لها حتى إذا كان يوم غربت
فتقول أي رب إن المسير بعيد وإني لا يؤذن لي لا أبلغ
قال فتحتبس ما شاء
الله ثم يقال لها
اطلعي من حيث غربت فمن يومئذ إلى يوم القيامة لا ينفع نفسا
إيمانها لم تكن آمنت من قبل الآية
হযরত উবাইদ ইবনে উমাইর রাযিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত যে, তিনি বলেন একদিন তোমার প্রভুর কিছু আলামত আসবে। তিনি বলেন (আর সেটা হল) পশ্চিম দিক হতে সূর্য্যদয়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৭ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٧
حدثنا ابن عيينة عن عمرو بن عبيد بن
عمير قال يوم يأتي بعض آيات ربك قال طلوع الشمس من مغربها
হযরত আব্দুল্লাহ রাযিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত যে, তিনি বলেন পশ্চিম দিক হতে সূর্য্যদয়টা দুটি একত্রিত ছাগলের বাচ্চার ন্যায়।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৮ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٨
حدثنا وكيع عن
سفيان عن منصور ووكيع عن الأعمش عن أبي الضحى عن مسروق
عن عبد الله قال طلوع
الشمس من مغربها كالبعيرين المقرنين
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আমর রাযিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত যে, তিনি বলেন পশ্চিম দিক হতে সূর্য্যদয়ের পর মানুষ একশত বিশ বছর জীবিত থাকবে।
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৪৯ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٤٩
حدثنا وكيع عن إسماعيل بن ابي خالد
عن خيثمة
عن عبد الله بن عمرو قال يبقى الناس بعد طلوع الشمس من مغربها عشرين
ومئة سنة
হযরত সাফওয়ান ইবনে আসসাল মুরাদী রাযিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত যে, তিনি বলেন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদের নিকট বর্ণনা করেছেন যে, পশ্চিমে তওবার জন্য একটি দরজা আছে। যার মাঝে প্রসস্ততা হল চলার সত্তর অথবা চল্লিশ বছর। তা কখনো বন্ধ হবে না। এমনকি তার দিক থেকে সূর্য্যদয় হবে। অতপর তিনি এ আয়াত তিলাওয়াত করেন ” যেদিন তোমার প্রভূর কতিপয় আলামত আসবে, সেদিন যারা পূর্বে ঈমান আনায়ন করে নাই তাদের ঈমান কোন উপকারে আসবে না। অথবা সে তার ঈমানের মধ্যে মঙ্গল কিছু অর্জন করেছে। ”
অধ্যায়
অষ্টমাংশের শেষাংশ
বিসমিল্লহির রহমানির রহীম।
দাব্বাহ বের হওয়া প্রসঙ্গে
[ আল ফিতান: নুয়াইম বিন হাম্মাদ - ১৮৫০ ]
___________________________________
نعيم بن حماد - ١٨٥٠
حدثنا ابن عيينة عن عاصم سمع زرا
عن صفوان بن عسال المرادي
قال حدثنا رسول الله صلى الله عليه وسلم إن
بالمغرب بابا للتوبة مسيرة عرضه
سبعون أو أربعون عاما لا يغلق عنه حتى تطلع الشمس من قبله ثم تلا هذه الآية يوم
يأتي بعض آيات ربك لا ينفع نفسا إيمانها لم تكن آمنت من قبل أو كسبت في إيمانها
خيرا

Execution time: 0.04 render + 0.00 s transfer.