Login | Register

আল বিদায়া ওয়ান্নিহায়া - খন্ড ৪ : পৃষ্ঠা ৩৪৬

আল বিদায়া ওয়ান্নিহায়া খন্ড ৪: পৃষ্ঠা - ৩৪৬

লেগেছে ৷ তখন নবী বত্মীম (সা) বললেন : এ যে ব্যক্তি ? লোকেরা বললো , ত্মী হা ৷ তখন নবী
করীম (সা) বললেন, যে আল্লাহর সঙ্গে সত্য অঙ্গীকার করেছিল, আল্লাহ তার অঙ্গীকারকে সত্যে
পরিণত করেছেন ৷ লোকটিকে নবী করীম (সা) তার নিজের জুব্বা দ্বারা কাফন পরান এবং তার
লাশ সম্মুখে রেখে জানযাের নামায পড়ান এবং (সালাত শেষে রাসুলুল্লাহ্ (সা)-এর মুখ থেকে) এ
দুআ স্পষ্ট শোনা গেল :

হে আল্লাহ! লোকটি তোমারই রান্দা ৷ তোমার রাস্তায় হিজরত করে বের হয়েছে ৷ শহীদ
হিসাবে সে মৃত্যুবরণ করেছে, আমি এ বিষয়ে সাক্ষ্য দিচ্ছি ৷

মুত্আ বিবাহ প্রভৃতি নিষিদ্ধ হওয়া

ইবন ইসহাক (র) বলেন : রাসুলুল্লাহ্ (সা) তার কাছে নিয়ে আসা গনীমতের মাল পর্যায়ক্রমে
গ্রহণ করতেন আর এক এক করে দুর্গ জয় করবেন ৷ রাসুলুল্লাহ্ (সা) সর্বপ্রথম তাদের যে দুর্পটি
জয় করেন তা ছিল ’নাএম’ দুর্গ ৷ এ দুর্গের নিকটেই হত্যা করা হয় মাহমুদ ইবন মাসলামাহকে ৷
তাকে হত্যা করা হয় উপর থেকে মাতা নিক্ষেপ করে ৷ এরপর জয় করা হয় কামুস দুর্গ এটি ছিল
বনু আবুল হুকায়ক-এর দুর্গ ৷ রাসুলুল্লাহ্ (সা) খায়বরের য়াহুদীদের মধ্য থেকে অনেককে বন্দী
করেন ৷ এসব বন্দীদের মধ্যে সাফিয়্যা বিনৃত হুয়াই ইবন আখতাবও ছিলেন ৷ ইনি ছিলেন কিনানা
ইবন রবী ইবন আবুল হুকায়কের শ্রী ৷ সাফিয়্যার দু’জন চাচাতো বোনও ছিলেন বন্দীদের মধ্যে ৷
রাসুলুল্লাহ্ (সা) হযরত সাফিয়্যাকে নিজের জন্য পসন্দ করেন ৷ দিহ্ইয়া ইবন খলীফা আল-কালবী
(রা) হযরত সাফিয়্যার জন্য রাসুলুল্লাহ্ (সা) এর দরবারে আবেদন জানিয়ে ছিলেন ৷ তিনি (সা)
হযরত সাফিয়্যাকে নিজের জন্য পসন্দ করেন আর দিহ্ইয়াকে দেন সাফিয়্যার দুই চাচাতো বোন ৷
ইবন ইসহাক (র) বলেন, খায়বরের প্রচুর বন্দী মুসলমানদের হস্তগত হয় এবং লোকেরা সেদিন
গাধার গোশৃত ভক্ষণ করে ৷ রাসুলুল্লাহ্ (সা) পাধার গোশৃত ভক্ষণ করতে তাদেরকে নিষেধ করার
কথা ইবন ইসহাক উল্লেখ করেছেন ৷ ইমাম ৰুখারী (র) গাধার গোস্ত ভক্ষণ করা নিষেধ-এ
পর্যায়ের হাদীছগুলো অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে এবং অতি উত্তম সনদে সংকলন করেন ৷ প্রাচীন
যুগের ও পরবর্তীকালের অধিকাংশ আলিমের মতে গড়াধার গোশত ভক্ষণ করা হারাম ৷ চার ইমাম
এরও এ মত ৷ তবে হযরত আবদুল্লাহ ইবন আব্বাস (বা) প্রমুখ কিছু সংখ্যক আলিম পাধার
গোশত খাওয়া বৈধ বলেছেন ৷ যে সব হাদীছে গধোর গোশত হারাম বলা হয়েছে, তারা এর বিভিন্ন
জবাবও দিয়েছেন ৷ যথা ভারবহনের কাজে পাধা ব্যবহার করা হয়, তখন পর্যন্ত থুমুস তথা এক-
পঞ্চমাৎশ বের করা হয়নি, অথবা পাধা নাপাক বস্তু আহার করে ৷ বিশুদ্ধ কথা এই যে, পাধা
মুলতই হারাম ৷ বিশুদ্ধ হাদীছে বণিতি আছে যে, রাসুলুল্পাহ্ (সা) এর ঘোষক ঘোষণা করেন :

ণ্এ৷ ৷ @ ৷



Execution time: 0.03 render + 0.00 s transfer.