Login | Register

আল বিদায়া ওয়ান্নিহায়া - খন্ড ৪

পৃষ্ঠা ১০০ ঠিক করুন

পর্যন্ত পৌছান ৷ ইবন হিশাম আরো ৫ জনের নাম যোগ করেছেন ৷ ফলে ইবন হিশামের মতে
শহীদ সাহাবীর সংখ্যা ছিল ৭০ জন ৷ এরপর ইবন ইসহাক মুশরিকদের নিহতদের নাম উল্লেখ
করেছেন ৷ সংখ্যায় তারা ছিল বইিশ জন ৷ তিনি ওদেরও গোত্র পরিচয় উল্লেখ করেছেন, আমি
বলি, সেদিন আবু আয়যা জুমাহী ছাড়া কোন মৃশরিক বন্দী হয়নি ৷ ইমাম শাফিঈ প্রমুখ তাই
বলেছেন ৷ রাসুলুল্লাহ্ (সা ) হযরত যুবায়রকে মতান্তরে আসিম ইবন ছাবিতকে নির্দেশ দিয়ে তার
মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিলেন ৷

উহুদ যুদ্ধে যুসলমানগণ এবং কাফিব্দেৱ উচ্চারিত পংক্তিমালা

এ প্ৰসংগে আমরা কাফিরদের কবিতাগুলোও উল্লেখ করব এজন্যে যে, তার প্রেক্ষাপটে
মুসলমানদের দেয়৷ প্রভ্যুত্তরমুলত কবিতাগুলাে শুনতে ভাল লাগবে এবং বুঝতে সহজ হয়ে ৷
উপরন্তু ওদের কবিতায় বর্ণিত অতিঃযাগসমুহের খণ্ডন নিশ্চিত হয়ে ৷

মুহাম্মাদ ইবন ইসহাক বলেন, উহুদ দিবসে যে সকল কাফির কৰিত আবৃত্তি করেছে তাদের

একজন হল হুবায়রা ইবন আবু ওয়াহব মাখবুমী ৷ সে তখনো তার পিতৃব শ কুরায়শী কাফিরদের
ধর্মের অনুসারী ৷ সে বলেহ্নিাষ্ক

পােত্রপতির কী হল যে, তিনি আমাকে রাতভর গাল-মন্দ করেছেন ৷ হিন্দের সাথে আমার
ভালবাসার কারণে ৷

অন্যদিকে হিন্দ ও আমাকে গালমন্দ করে রাত কাটিয়েছে ৷ এবং সে আমাকে রাততর ভৎসনা
করেছে ৷ আর যুদ্ধ সে তো আমাকে সকল বন্ধুত্ব ও ভালবাসার কথা ভুলিয়ে দিয়েছে ৷

শ্

থাম, থাম হে হিন্দ! তুমি আমাকে তৎসন৷ করােন৷ ৷ আমার চরিত্রের কথা তো তুমি জানই ৷
আর আমার চরিত্রের কিছুই আমি গোপন রাখিনা ৷

আমি তাে সহায়তাকারী পুরুষ বানুকাব্ গোত্রের ৷ তারা যে সমস্ত দায় ও বোঝা কাধে তুলে
নিয়েছে সেগুলো পরিশোধ ও উত্তরণে আমি তো ওদ্দেরকে সহযোগিতা করি ৷


আমার অস্ত্রশস্ত্র আমি বোঝইি করেছি একটি বৃহদাকার ঘোড়ার পিঠে ৷ আমার ঘোড়াটি দীর্ঘ
পদক্ষেপকারী দ্রুতগামী যখন সে চলতে ৩শুরু করে তখন সেটি যেন প্রতিযোগিতায় লিপ্ত ঘোড়া ৷



সেটি যখন চলতে শুরু করে তখন সেটিকে মনে হয় দুর্গম পথ অতিত্রুমকারী কাফেলা ৷
সেটি যেন প্রচণ্ড বেগে ধাবমান ঘোড়া, যেটি তার সাহায্যকারী কাষেম্পার সাথে মিলিত ৩হবার জন্যে
প্রাণপণ চেষ্টা চালায় ৷


পৃষ্ঠা ১০১ ঠিক করুন

,া৷ ;;
এটি উৎকৃষ্ট প্রজাতি আওয়াজ প্রজাতির ঘোড়া, এটি যখন হনহন করে ছুটতে থাকে তখন
তার কন্ঠ থেকে মিষ্টি মধুর শব্দ বের হয় ৷ এটি ঘন পত্র-পল্লব বিশিষ্ট শারা বৃক্ষের ডালের ন্যায় ৷

কেশরগুলো উচু উচু ও ঝরঝরে ৷
াৰ্পু প্রুন্ন্া’৷ দু;
আমি প্রস্তুত ণ্রখেছি এই ঘোড়া, সুতীক্ষ্ণ দুধারী তলােয়ার এবং শক্ত-মজবুত বর্শা বিপদ
মুকাবিলার জন্যে যদি আমি কোন বিপদের সম্মুখীন হই ৷
এটি এবং সংরক্ষিত কঠিন মাটির ন্যায় মযবুত সফেদ তরবারি এগুলো আমাকে সাহস
যুপিয়েছিল, উদ্বুদ্ধ করেছিল ৷ এগুলোর সমকক্ষ আমি কিহ্নটু দোৰুইানি ৷
আমরা ইয়ামানের প্রান্ত থেকে বনুকিনানা শহর অতিক্রম করছিলাম ৷
া;ৰু;ন্ ব্লু১এে ;;া৷;
কিনান৷ গোত্রের লোকজন বলল, আমাদেরকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছ ষ্ আমরা বললাম,

তােমাদেরকে নিয়ে যাচ্ছি খেজুর বীথির দেশে ৷ সুতরাং তোমরা ওই দেশ ও দেশবাসীর উদ্দেশ্যে
যাত্রা কর ৷

’;,;১
আমরা অশ্বারােহী যোদ্ধা, আজকের উহুদ যুদ্ধের দিনে ৷ যুদ্ধের জন্যে সড়াদ গোত্র উড়ে
এসেছে ৷ আমরা বললাম আমরাও আসছি ৷
াহ্ণ্£১া১ওন্ ট্ন্ট্টণ্ইন্ ১দ্বু ৰুপ্ ছু)ৰুপ্ঠুছু &; — fi«; é;fl;« মোঃ ৷;া,;; ট্ন্ষ্টুচ্স্
ওরা দ্রুতবেগে ছুটে এসেছে ৷ ওদের মধ্যে আছে তরবারি পরিচালনায় দক্ষ যোদ্ধা ,

প্রতিপক্ষকে কেটে টুকরো টুকরো করতে পারে এমন বর্শা নিক্ষেপকারী, ওদের পথের দৃরতৃ যেন
হ্রাস করে দেয়া হয়েছে ৷

ধ্রু০ন্-ৰুন্এ
এরপর আমরা যাত্রা করলাম ৷ তখন আমরা যেন প্রচণ্ড ঠান্ডা মুকাবিলা করে যাচ্ছি ৷ অন্য
দিকে বনু নাজ্জার গোত্রের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ প্রস্তুত হল, কান্নার রোল সৃষ্টি করে ৷

৷ ’গ্লু
যুদ্ধের সময় ওদের শীর্ষস্থানীয় যােদ্ধাপণ এমন হয়ে যায় যে, তাদের অশ্বদলের ক্ষুরের
আঘাতে উড়তে থাকা ধুলি ঝড় তাদের আবাসস্থল থেকে ওদেরকে দুরে সরিয়ে দেয় ৷


পৃষ্ঠা ১০২ ঠিক করুন

শ্প্ :ণ্
অথবা তারা পুরানো বৃক্ষ ভ্যাল তিক্ত মাৰুকাল ফল বাযুপ্রবাহে সেটি অ্যান্দোলিত হয় ৷ পাখীরা
সেগুলো কুড়িৰ:য় খায় ৷
আমরা মাল সম্পদ রয়ে করি দেদারসে অবিরত, বে হিসাব ৷দ্র৷ ন্ত্রণ ন্থ ৰ্টসৃষ্টির লষ্মেংশু আমরা
ক্রায়ান্বিত হয়ে ত্মশ্ব পরিচালনা কার তার চোখে গুত্১ ৷ দিয়ে ৷
াঠুট্রুণ্
বহু রাত আমাদের এমন কেটেছে যে, উট জবাইকারী ব্যক্তি শুষ্ক গোরর তথা য়ট ন্দুা৷লয়েৰু
দিয়েছে আলো দেখানোর জন্যে ৷ আ র মুসাফিরদেরকে এদিকে আহবান করার জন্যে আহ্বনেকারী
ব্যক্তি ঢাক-ঢোল পিটিয়েছে ৷
প্চন্ড কুয়ড়াশাময় জুমাদার বহু রাত্রি আমার এ ন কেটেছে যে আমি আম৷ ৷র অশ্ব নিয়ে ভ্রমণে
বেরিয়েছি ৷
ৰুা
এত ঠান্ডা ও শৈত্য প্রবাহের রাত ছিল যে, ঠান্ডার কারণে কোন কুকুর একবারের বেশী দুরার
ডাক ছাড়ত না, বড় বড় সাপগুলোও তেমন রাতে গর্ত থেকে বের হত না ৷
fl এ ৷
ওই ইিমশীত্যা রাতে আমি দীন দৃংথী ও দুঃন্থ মানুষদের জন্যে লেনিাহান শিখাময় আগুন
জ্বালিয়েছি৷ ওই আগুন বিদ্যুতের মত উজ্জ্ব৷ ৷ আমি ওই আগুনের উত্তাপ বৃদ্ধি করি ৷
ণ্হ্র:বু১জু
৷ নশীল ৷র এই উদ৷ ৷রত৷ আমাকে উত্তরাধিকার রুপে প্রদান করেছে আমর এবং তার পৃর্বে
তার পিতা ৷ মুশতা অঞ্চলে অবস্থানকালে তারা এরুপ করতেন ৷
াঠু১াদ্বু
তারা নক্ষত্ররাজির অবস্থান লক্ষ্য করে রাতে ভ্রমণ করতেন; কিন্তু তাদের এই সাধনা কখনো
কঠিন বাধার নিকটবর্তী হয়নি ৷
ইবন ইসহাক বলেন, এরপর হাসৃসান ইবন ছাবিত (বা) উপরোক্ত পংক্তিমালার জবাব দেন ৷
(কিভু ইবন হিশাম এটিকে কা “ব ইবন মালিক প্রমুখের বলে উল্লেখ করেছেন ৷ তবে আমার মতে
ইবন ইসহাকের বক্তব্য প্রসিদ্ধ ৷

াট্রুৰুৰুব্লুহ্ন (fl ৷ ণ্;দ্বুন্,


পৃষ্ঠা ১০৩ ঠিক করুন

ণ্তামাদের বোকামি ও অজ্ঞতার ফলশ্রুতিতে তোমরা কিনানা গোত্রের লোকজনকে রাসুলুল্লাহ্
(না)-এর বিরুদ্ধে প্রেরণ করেছ ৷ জেনে রেখ যে, আল্লাহর সৈন্যগণ ওই শত্রুপক্ষকে লাঞ্ছিত
করবেনই ৷

াট্রু১ৰুপ্রুক্ট্র ট্রট্রুৰু,া
তোমরা তো ওদেবকে মৃভ্যুকুপে ঠেলে দিয়েছ সকাল বেলায় ওদের প্ৰতিশ্রুত স্থান
জাহান্নাম আর হত্যা ওদেরকে প কড়াও করবেই ৷

’ :

হে কাফির £নতৃবৃন্দ৷ তোমরা তো ওদেরকে প্রচুর অস্ত্রশস্ত্রাট্ায়ে সাজিয়ে দািয়ছ, তোমাদের
সতাদ্রোহিতা তােমাদেরকে প্র৩ ৷রিত করেছে ৷

াহ্ৰুট্রুষ্ ৷ ১৷ ৷
বদর যুদ্ধে আল্লাহর সৈনিকগণ তোমাদের পক্ষের যাদেরকে হত্যা করেছে এবং তারপর
আবজন৷ পুর্ণ কুপে নিক্ষেপ করেছে আল্লাহর ওই সৈনিকদের থেকে কেন তোমরা উপদেশ গ্রহণ
করনি ?
ংণ্দ্বু
তোমাদের বহু বন্দী লোককে আমরা মুক্তিপণ ছাড়া এবং চুল কেটে দেয়া ছাড়া মুক্ত করে
দিয়েছি ৷ আমরা ওদের প্রতি ৩বন্ধুসুলভ ৩আচরণই করেছি ৷
ইবন ইসহ ক বলেছেন যে, হুবায়রা ইবন আবু ওয়াহ্ব মাখয়ুমীর কবি৩ ৷র জবাব কা ব ইবন
মালিক এভাবে দিয়েছেন ং


;ষ্

ৰুগ্

আমাদের পক্ষ থেকে কি গাসসান গোত্রের নিকট কোন আক্রমণ এসেছে ? ওদের পেছনে
তো রয়েছে উচু-নীচু বন্ধুর ভুমি যেখানে ভ্রমণ করা কষ্টকর বটে ৷

ওদের পেছনে রয়েছে ধুধু ময়দান ও পার্বত্য ভুমি ৷ দুর থেকে ওথানকার বালিগুলোকে মনে
হয় জলাশয় ৷

জংলী বকরীগুলো ওই শুষ্ক মরুভুঘিতে বসবাস করে ক্ষীণকায় দুর্বল শরীরে ৷ এরপর বৃষ্টি
বর্ষণে সদ্য গজিয়ে উঠা ঘাস-পাতা খেয়ে সেগুলো মোটা তাজা হয়ে যায় ৷


বৃষ্টিতে সেখানে জন্যে ম ওসুমী ঘাস ৷ ওই রুচি ও সজীব ঘাসগুলাে চকচক করে যেমন
চকচক করে , ব্যবসায়ী পণ্য কাতান ৷


পৃষ্ঠা ১০৪ ঠিক করুন

সেখানে রয়েছে নীলগাভী ও বলা হার৭ , সেগুলো একটার পেছনে একটা নিঃর্ভয়ে বিচরণ
করে ৷ ণ্ন্থোনে ন্-মাছে উটপাথির ;ন্ডিম যেগুলোর খােসা ভাঙ্গা ফটি৷ অবস্থায় রয়েছে ৷
াঠুটুপুা; শুশুশু
আমাদের ধর্মের পক্ষে প্রত্যুত্তর দেয়া স্পষ্টভাষী, বাশ্মী ব্যক্তিগগ, তাদ্যেৰ্ মাথায় থাকে শিরস্ত্রাণ
যা ঝলমল করে ৷
এবং প্রতিধ্বনি করে কঠিন কঠোর পাথ গুলো, ওগুলোতে পানি মিশ্রিভ্র হলে ;সভ্রুলাে ন্ডিজে
পানি টেনে সিক্ত হয়ে উঠে ৷
ছুটুপুট্
তবে বদর যুদ্ধের ঘটনায় ওরা রলাবলি করছিল যে, কাদের সাথে তোমরা মুকাৰিলা
করছিলে ৷ গায়বী সংবাদ তো অবশ্যই কল্যাণ সাধন করে ৷
া,ট্রুছু;টুর্চুষ্
কোন দেশের অধিবাসিগণ যদি আমরা মুসলমান ব্যতীত অন্য কেউ হয় তবে সেটি আমাদের
জন্যে ভরের স্থান বটে ৷ কিন্তু মুলত আমাদের ভয়ে ওরা রাত কাটায় ৷

; শ্ শ্ শ্ : শ্ ; ¢

আমাদের ঘোড়া সওয়ার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে এসে বলেছিল আপনারা প্রস্তুত হোন আবু
সুফিয়ান ইবন হারব মুসলমানদের বিরুদ্ধে যে সৈন্য সমাবেশ ঘটিয়েছে তার মুকাবিলার জন্যে ৷
৷ ন্প্রুট্রু র্চুট্রুষ্ট্রু১
যখন যে কেউ আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে ৷ আমরা ওই ষড়যন্ত্র দমনে সবচেয়ে সিদ্ধহস্ত ৷



আমাদের বিরুদ্ধে সবাই মিলেও যদি কোন চত্র ৷ন্ত তৈরী করে তবু এটা ঠিক যে তারা
আত্মসমর্পণ করাবই এবং ক্ষতি স্বীকার করবে ৷

সৌংপু

আমরা পুর্ণ শক্তিতে ঘুকাবিলা ৷করে যাব ৷ অবশেষে এমন পরিস্থিতি ৩সৃষ্টি হবে যে, প্রতেক্লক
গোত্র আমাদের ভয়ে তটস্থ ও অস্থির হয়ে থাকবে ৷

৷ এে,
ওরা যখন আমাদেরইযযত নষ্ট করার চেষ্টা করেছে, তখন আমাদের নেতৃবর্গ বলেছেন যে,
যদিইযযত্ইে রক্ষা করতে না পারি তবে আমাদের সাধ্য সাধনার কী লাভ ষ্


পৃষ্ঠা ১০৫ ঠিক করুন

মনে ৷:রখ, আমাদের মধ্যে আছেন আল্লাহর রাসুল (না) আমরা তার নির্দেশ পালন করি ৷
তিনি যখন আমাদের মধ্যে কোন কথা বলেন, তখন আমরা তা থেকে এক চুলও বিচ্যুত হই না ৷

র্চুঐটুছুটু ণ্চ্প্ট্টণ্ণ্এ টুছু ং>; ঠুপুন্ঠু ধ্ট্রু) ৬ঞ ষ্টু ছুৰুপ্নৈ ত্-৬ ৰু এঞও
তার প্ৰতিপালকের পক্ষ থেকে তার নিকট রুহ অর্থাৎ হযরত জিবৃরাঈল অবতীর্ণ হন ৷
জিবৃরাঈল আকাশ থেকে অবতীর্ণ হন এবং আবার আকাশে উঠে যান ৷

ৰু ;ৰুধ্র্দুব্লুটু
আমরা আমাদের সকল কর্মে তার সাথে পরামর্শ করি, তিনি কোন কাজের আগ্রহ প্রকাশ
করলে আমরা তা বাস্তবায়নে তার নির্দেশ শুনি ও পালন করি ৷

প্রথম পবান্নেই রাসুলুল্লাহ্ (সা) আমাদেরকে বলে দিয়েছেন যে, তোমরা মৃত্যুর ভয় ত্যাগ
করবে; বরং তা (শহীদী মৃত্যু) কামনা করবে ৷

তোমরা বরং হয়ে যাবে এমন, যে ব্যক্তি তার জীবন বিক্রি করে মহান আল্লাহর ভৈনকটোর
উদ্দেশ্যে যে, আল্লাহর নিকট জীবন পাবে এবং সেখানে ইচ্ছামত আসা-যাওয়া করবে ৷

গ্লুট্রুন্ংরু৷ ;ল্গুাপ্রু ,পুশু১৷ ৷ বু,৷ ;এ৷ ৷ ,দ্বু;ন্ ৷“,’াহ্রঠুন্ট্টৰুৰু ছু’ও১শ্রু ট্রু৷ ৷হুৰুব্লুহ্র ;ষ্কৃা,
তোমরা বরং মযবুতভাবে তরবারি ধর ৷ আর আল্লাহর উপর ভরসা রাখ ৷ নিশ্চয় সকল কর্ম
আল্লাহর অধীন ৷

ছুর্দুপুহ্রপুট্র ৰুর
এরপর আমরা সকাল বেলা প্রকাশ্যে শত্রুপক্ষের উদ্দেশ্যে যাত্রা করলাম ৷ আমাদের মাথার
উপর চিকচিক করজ্যি তীক্ষ্ণ তরবারি , আমাদের মনে কোন ভয়ভীতি ছিল না ৷

’ব্লুটুড্রু; ছু৷ ৷ঠুট্রুাৰুাট্রু৷ ৷টুট্রুট্রুট্রু৯ ৷ট্রু৷ ৷
সাথে ছিল লৌহ নির্মিত অস্ত্র ও বশা ৷ কারো পায়ে আঘাত করলে তার আর রক্ষা নেই ৷

) ব্লু

ষ্!ষ্ ’ : শ্শ্ (;ং» ষ্শ্ষ্ র্চ ষ্শ্ শ্ ণ্০ণ্ :

আমরা এসে পৌছলাম এক জনসমুদ্রে ৷ ওখানে গিজগিজ করছিল শত্রুসৈন্য ৷ ওদের কেউ
শিরস্ত্রাণ পরিহিত কেউ খালি মাথায় ৷

১৪ —


পৃষ্ঠা ১০৬ ঠিক করুন

ওরা ছিল তিন হাজার আর আমরা মাত্র তিনশ’ আর খুব বেশী হলে আমাদের সংখ্যা চারশ’
-এর মত হয়ে ৷

; ণ্ fl )

ঠু);স্;ম্এ এএে

আমরা ওদের উপর আক্রমণ চালাচ্ছিলাম ৷ আমাদের মাঝে মৃত্যু ও শাহাদাতের ঘটনা
চলছিল ৷ আমরা ওদেরকে মৃতু ত্যুকুপে ঠেলে দিচ্ছিলাম ৷ আমরাও মৃতু ভ্যুকুপে পতিত হচ্ছিলাম ৷

লোঃর্টুষ্ন্
ভীর-ধনুক সমান তালে ব্যবহৃত হচ্ছিল আমাদের মধ্যে এবং ওদের মধ্যে ৷ ওই তীর ছিল
প্রচণ্ড ধারালাে ত্তীক্ষ্ণ ইয়াছরীবের তৈরী ৷


শ্

৫ এ

আরও ভীর ছিল মক্কার তৈরী প্রশস্ত মাথা সায়েদীয়ার তৈ রী ৷ ওগুলে লতৈ বীর সময় তাতে বিষ
মিশ্রিত ৩করে দেয়৷ হয়েছিল ৷

)

ৰু;হুছুট্ররুও ,£;৷ ৷ ৮,;;া,;া; দ্বু;ও )াএ্হুাশু৷ ৷ ৷;ং ;া; ঠু ;টু;;১পু

ওই তীর ও বশা কখনো কারো শরীরে গিয়ে আঘাত করছিল আবার কারো কারো চোখে
গিয়ে পতিত হচ্ছিল ৷

; ব্লু শ্ শ্


সেখানে ছিল বহু মশ্ব ৷ উন্মুক্ত প্রাম্ভরে ওগুলােকে মনে হচ্ছিল পঙ্গপাল ৷ সমতল ভুমিতে
সেগুলো চার পা স্থির রেখে নিদ্যেশর অপেক্ষায় ছিল ৷

ছু;ন্ৰুাছু রুএে ৷
আমরা মুখোমুখি হলাম ৷ যুদ্ধের চাকা আমাদেরকে নিয়ে ঘুরতে শুরু করল ৷ আল্লাহ্
৷ আলা যাকে রক্ষা করেন তাকে হটানাের শক্তি কারো নেই ৷

(’
’; ন্, , ; ই ; ,-


আমরা ওদেরকে আক্রমণ করেছি যেরেছি ৷ অবশেষে তাদের নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে বদর
প্রাতরে ফেলে রেখে এসেছি ৷৩ তারা ওই ময়দানে পড়ে রয়েছে মুলােত্পাঢি ৩ণাছের গুড়ির ন্যায় ৷



র্টৰু;ন্,া; ;;

আমরা ভোরবেলা থেকে আক্রমণ শুরু করেছি ৷ সন্ধ্যাবেলায় গিয়ে আমরা ঝামেলামুক্ত
হয়েছি ৷ তখন সুর্যকে মনে হচ্ছিল ঝলমলে চকচকে অগ্নিকুণ্ড ৷

) : )

৷ , ;
সন্ধা৷ বেলায় ওরাও দ্রুত ফিরে গিয়েছে ক্ষত-ৰিক্ষত দেহ ও বেদনাতৃর মন নিয়ে, ওরা যেন
শুন্য মেঘ, প্রচণ্ড বায়ু প্রবাহ যার সব পানি ঝরিয়ে দিয়েছে ৷


পৃষ্ঠা ১০৭ ঠিক করুন

ন্ট্রুটু০ ৷ ৰু,ছুাট্রু ৷ট্রুছুটুট্রু
আমরাও স দ্যা বেলায় ফিরে গিয়েছি আশা £দর (শষ ল্যেকটিসহ ৷ আমরা গিয়েছি ধারে সুন্থে
হোল দুলে আমরা যেন বীশ ৷৷হ অঞ্চালর গােশত খাওয়া পরিতৃপ্ত সিং হবু-ল ৷

ধ্ মোঃ

ণ্ণ্ণ্ণ্ণ্

আমরা এরুপ করে থাকি৩ তবে মহান আল্লাহ্র নিকট যে পুরস্কার রয়েছে তা প্ৰণস্ততর ৷

শ্ ণ্

গ্র১ণঃ

আমাভৈদব যুদ্ধের চাকা ঘুরেছে ৷ ওর ওদের যুদ্ধের চাকা ঘুরিয়েরুদ্রী ওরা অকল্যাণ পেয়ে তৃপ্ত
হয়েছে ৷



আমরা এমন মানুষ যে খুন ও নিহত হওযাকে আমরা মড়ানহানি মনে করি না ৷ যারা
দ্যায়ত্হৃ শীল অন্যের সুখ দুঃখের যিম্মাদা যে তাদের উপর তো আঘাত আসলেই ৷

সকল ঘিপদাপদে আমরা ধৈর্যশীল অবিচল ৷ কেউ মারা গেলে তার জন্যে চোখের পানি
ফেলতে দেখি না কাউকে ৷



আমরা যুদ্ধের সন্তানষোদ্ধা, আমরা যা বলি তা করেই ছাড়ি ৷ আর যুদ্ধ আমাদের জন্যে যে
পারস্থিতি তাই ৷নয়ে আসুক তাতে আমরা অস্থির হই না ৷

) ণ্

৫১
আমরা যুদ্ধের সন্তান যোদ্ধা আমরা বিজয়ী হলে অশ্লীল কাজে লিপ্ত হই না ৷ আর বিজিত
হলেও দুঃখিত ইে না ৷

এ ) ;

এে ট্রু

আমরা অগ্নিস্ফুলিঙ্গ যার তাপ থেকে শত্রুপক্ষ দুরে সরে যায় এবং যারা সেটির কাছে ঘেষে
তা তাদেরকে জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে কালো করে দেয় ৷

হে ইবন যড়াবআরী ! তুমি আমার বিরুদ্ধে দর্প প্রকাশ করেছে৷ অথচ তােমাদেরকে পাকড়াও
করার জন্যে ধাওয়াকারীরা শেষ রাতে যাত্রা করেছে ৷

;

মৈং


পৃষ্ঠা ১০৮ ঠিক করুন

সুতরাং তুমি নিজেকে জিজ্ঞেস কর, সা’দের উচ্চতুমি প্রভৃতি স্থানে যে মানবকুলেব সর্বাধিক
লাঞ্ছিত ও অভিশপ্ত কে ?
ত্রুএট্র
এবং কে এমন ব্যক্তি যুদ্ধ যার দর্পচুর্ণ করেনি এবং যুদ্ধের দিন কার ঢেহার৷ যিবর্ণ হয়নি ৷
০শ্ন্ শ্দ্রণ্
আমরা তোমাদের উপর আক্রমণ করেছি প্রচন্ড আক্রমণ আল্লাহর শক্তি ও সাহায্য নিয়ে ৷
আমাদের বশার ফলাগুলাে তোমাদের দিকে তাক করেই হামলা করেছি

আমাদের ভীরগুভ্রুলা বারবার ণ্তামাদের উপর গিয়ে পড়ছে, ৩ড়ারের ফলাগুভ্রুলা যেন
শীতকালেব হরিণ পাল ৷ খুব দ্রুত পথ অতিক্রম করছে ৷

&
আমরা অগ্রসর হয়েছি তোমাদের পতন্বকবািহী সৈনিকদের উদ্দেশ্যে এবং পতাকার কথা

উল্লেখ করে যারা কবিতা আওড়াচ্ছিল তাদের উদ্দেশ্যে ৷ তবে কবিতা ৷নয় পতাকা হাতে আল্লাহ্র
প্ৰশং ই অধিকতর সৎগত ৷

শ্শ্শ্শ্শ্শ্শ্

আমাদের মুজাহিদগণ ওদের নিকট গিয়ে পৌছেছে ৷ ইতোমধ্যে ওরা আমাদের সৈনিকদের

নিকট আত্মসমর্পণ করেছে এবং তারা লাঞ্ছিত হয়েছে ৷ মহান আল্লাহ তার নির্দেশ কার্যকর
করেছেন ৷ তিনি সর্বশ্রেষ্ঠ কর্ম-বিধায়ক ৷

ইবন ইসহাক বলেন যে, আবদৃল্লাহ্ ইবন যাবআরী উহুদ দিবসে নিম্নের পৎক্তিমালা উচ্চারণ
করেছে ৷ তখনো সে মুশরিক ৷
ওহে কাক তুমি কি শুনেছ ? তাহলে কিছু বল ৷তু তো শুধু ত!ই বল যা হয়ে গিয়েছে ৷
ৰু৮’ন্১
নিশ্চয়ই কল্যাণ ও অকল্যাণ দৃটোর জন্যে নিল্টি মেয়াদ রয়েছে এবং দৃটোর পক্ষেই
গ্রহণযোগ্য যুক্তি রয়েছে ৷

এ এ : শ্ : ! ৷৷ ’§

শ্ ) ; , ষ্ ,,

ওদের মাঝে দান-দক্ষিণার ব্যাপারটি গৌণ ও তৃচ্ছ ৷ মুলত ৩ধনী ও দরিদ্র উভয়ের কবর সমান
সমান ৷



পৃষ্ঠা ১০৯ ঠিক করুন

সকল আরাম-আয়েশ ও সুখ শাস্তি একদিন শেষ হবেই ৷ যুগের মেয়েরা তথা কালচক্র
সবাইকে নিয়ে খেলা করে ৷
হাসৃসানকে আমার পক্ষ থেকে একটি সংবাদ জানিয়ে দাও যে কবিতা রচনা ও কাব্য
প্রতিযোগিতা বিদ্বেষী মনে স্বস্তি প্রদান করে ৷
এ১)বু, ণ্র্চু
তুমি তাে দেখেছ বহু মাথার খুলি এরষ্ হা ৩পা ইতস্তহু> নিক্ষিপ্তভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে
রয়েছে ৷
হাসৃসানের পাজামা খুলে গিয়েছে ৷ ওরা সকলে তাদের অব৩ রণ ক্ষেত্রে নিহত হয়েছে ৷
আমরা হত্যা করেছি তোমাদের অভিজাত ও মযদািবান বড় বড় কত নেতাকে ৷ যারা
পিতৃপক্ষ মাতৃপক্ষ উভয় দিক থেকে মযাদাবান ৷ অগ্রণী ও বীরযােদ্ধ৷ ৷

তারা প্রকৃতই অভিজাত ৷ যুবক এবং দানশীল, তীর নিক্ষেপের সময় অলসতাকারী নয় ৷
সুভরাৎ সাহাসী নােকগুলোকে সরিয়ে নিয়ে যাও ৷ তারা যেন মাথায় শিরস্ত্রাণ পরে যুদ্ধের
ময়দানে না থাকে ৷
হায় বদর যুদ্ধে আমার যে সকল নেতৃবর্গ মারা নিয়েছেন ওরা যদি এখন উপস্থিত থাকতেন
আর বশা নিক্ষেপের শিকার হয়ে খাযরাজ গোত্রের লোকেরা কেমন অস্থির হয়ে পড়েছে তা
দেখতে পােতন !

কুব৷ পর্যন্ত পৌছে ওরা উট বসিয়ে দেয় ৷ আবৃদ আশহাল গোত্রে হত্যাকাণ্ড তীব্র রুপ ধারণ
করেছে ৷

এরপর সেটিকে নাচাতে শুরু করল, উটপাখির বাচ্চার নাচনের ন্যায় ৷ যখন সেটি নেচে
নেচে পর্বতের উপরের দিক উঠে ৷

৷ ৷



Execution time: 0.04 render + 0.00 s transfer.