Login | Register

আল বিদায়া ওয়ান্নিহায়া - খন্ড ৩ : পৃষ্ঠা ২৬০

আল বিদায়া ওয়ান্নিহায়া খন্ড ৩: পৃষ্ঠা - ২৬০


সকল তোমরা লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্’ বল, তাহলে তোমরা সফলকাম হবে ৷” তখন আমি
দেখতে পাই যে, অন্য একজন মানুষ তার পেছনে দাড়িয়ে তার প্রতি ধুলি নিক্ষেপ করছে ৷ সে
ছিল আবু জাহ্ল ৷ আবু জাহ্ল বলছিল, হে লোক সকল! এই মানুষটি যেন তোমাদেরকে
তোমাদের দীনের ব্যাপারে প্রভাবিত করতে না পারে ৷ সে চায় যে, তোমরা লাভ ও উবৃযার
উপাসনা ত্যাগ কর ৷ এ বর্ণনায় আছে যে, পেছনের ব্যক্তিটি ছিল আবু জাহ্ল ৷ এটি
বর্ণনাকারীর ভ্রান্তিও হতে পারে ৷ অথবা এমনও হতে পরে যে, রাসুলুল্লাহ্ (না)-এর বিরুদ্ধে
অপপ্রচারের জন্যে তার পেছনে কখনো থাকত আবুজাহ্ল আর কখনো থাকত আবু লাহাব ৷
উভয়ে পালা করে তাকে কষ্ট দিত ৷

ইবন ইসহড়াক বলেন, ইবন শিহাব আমার নিকট বর্ণনা করেছেন যে, দীনের আহ্বান নিয়ে
রাসুলুল্পাহ্ (সা) কিন্দা গোত্রের র্তাবুতে উপস্থিত হন ৷ সেখানে তাদের দলপতি মালীহ্ উপস্থিত
ছিল ৷ তিনি ওদেরকে আল্লাহ্র দিকে ভাকলেন এবং নিজেকে তাদের নিকট পেশ করলেন ৷
তারা তার ডাকে সাড়া দিতে অস্বীকৃতি জানাল ৷

ইবন ইসহড়াক বলেন, মুহাম্মদ ইবন আবদুর রহমান ইবন, হুসাইন আমার নিকট বর্ণনা
করেছেন যে, রাসুলুল্পাহ্ (সা) কালব গোত্রের বড়ানু আবদুল্লড়াহ্ নামক উপগােত্রের র্তাবুতে উপস্থিত
হয়ে তাদেরকে আল্লাহ্র প্রতি দাওয়াত দিলেন এবং তাকে নিরাপত্তা দানের অনুরোধ জানালেন ৷
তিনি বললেন, হে বনু আবদুল্লাহ্! আল্পাহ্ তাআলা তো তোমাদের গোত্রীয় পিতাকে একটি
সুন্দর নাম দিয়েছেন ৷ তারা তার দাওয়ত গ্রহণ করেনি এবং তার অনুরোধ রক্ষা করেনি ৷
আমাদের এক সঙ্গী আবদুল্লাহ ইবন কাআব ইবন মালিকের উদ্ধৃতি দিয়ে আমাকে বলেছেন যে ,
রাসুলুল্লাহ্ (না) বনু হানীফা গোত্রের তাবুতে উপস্থিত হয়ে তাদেরকে আল্লাহর প্রতি আহ্বান
জানিয়েছিলেন এবং তাকে নিরাপত্তা দানের প্রস্তাব পেশ করেছিলেন ৷ উত্তরে তারা যে কদর্য
ভাষা ব্যবহার করে আরবের অন্য কেউ তা করেনি ৷

রাবী বলেন, যুহরী আমার নিকট বর্ণনা করেছেন যে, রাসুলুল্লাহ্ (সা) আমির ইবন
সা’সাআহ গোত্রের নিকট উপস্থিত হয়ে তাদেরকে আল্লাহর প্রতি দাওয়াত দিয়েছিলেন এবং
তাকে নিরাপত্তা দানের অনুরোধ জানিয়েছিলেন ৷ বুহায়রা ইবন ফিরাস নামের তাদের একজন
প্রত্যুত্তরে বলেছিল, আল্লাহ্র কলম, কুরায়শের এই যুবকটিকে যদি আমি আমার অধীনস্থ করতে
পারতাম, তবে তার মাধ্যমে আমি সমগ্র আরব ভুখণ্ডে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে পারব ৷ তারপর সে
রাসুলুল্লাহ্ (না)-কে বলল, আচ্ছা আমরা যদি আপনার মতাদর্শ মেনে আপনার অনুসরণ করি,
তারপর আপনি আপনার বিরোধীদের উপর বিজয় লাভ করেন, তাহলে আপনার পর আমরা কি
রাজত্বের মালিক হব ? রাসুলুল্লাহ্ (সা) বললেন, কর্তৃত্ব ও রাজত্ব মুলত আল্লাহ্র হাতে ৷ তিনি
যাকে চান তা দান করেন ৷ তখন বুহায়রা বলল, এ কেমন কথা যে, আপনাকে রক্ষার জন্যে
আমরা অড়ারবদের আক্রমণের মুখে বুক পেতে দেব আর আপনি বিজয়ী হলে রাজত্ব যাবে
অন্যের হাতে ! যাকগে আপনার অনুসরণ করার আমাদের কোন প্রয়োজন নেই ৷ তারা তার
অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করল ৷



Execution time: 0.02 render + 0.00 s transfer.