Login | Register

ফতোয়া: সু্ন্নাহ-বিদআত

ফতোয়া নং: ৪৭৬৬
তারিখ: ১৭/১২/২০১৬
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

উটের পিঠের মত কবর উঁচু করে রাখা ৷

প্রশ্ন
আমাদের দেশে যে কবরকে উটের পিঠের মত করে উঁচু করা হয়, তার কি কোন ভিত্তি আছে ? অথচ কবর সমান করে রাখার কথা সহীহ হাদীসে আছে ৷ দলিলের ভিত্তিতে কোনটি করাই সুন্নাত? জানাবেন প্লীজ ৷
উত্তর
সুফিয়ান তাম্মার রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, তিনি রাসূল সাঃ এর কবরকে উটের কুঁচের মত উঁচু
দেখেছেন।
সহীহ বুখারী, হাদীস নং-১৩৯০, মুসান্নাফ আব্দুর রাজ্জাক, হাদীস নং-৬৪৮৪৷
এই হাদীসের ভিত্তিতে আমাদের হানাফী মাযহাব অনুযায়ী কবরকে উটের কুঁচের মত কিছুটা উঁচু রাখা সুন্নত৷ তাছাড়া একটু উচু থাকলে কবর হিসেবে জায়গাটি চিহ্নিতও থাকে ৷ পানিও জমে থাকে না যদ্বরুন তাড়াতাড়ি কবর নষ্ট হয় না৷
তবে সমান রাখাও জায়েজ। কেউ চাইলে সমান রাখতে পারবে৷
মুফতী মেরাজ তাহসীন মুফতীঃ জামিয়া দারুল উলুম দেবগ্রাম ব্রাক্ষনবাড়িয়া৷
01756473393

ফতোয়া নং: ৪৭১১
তারিখ: ১/১১/২০১৬
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

পুরুষের চুল রাখার সুন্নত তরিকা৷ মেয়েদের চুল কাটা৷

প্রশ্ন
(ক) পুরুষের চুল রাখার সুন্নত তরীকা কি? রাসূল সাঃ কেমন চুল রাখতেন? চুল মুন্ডানো কি সুন্নত?
(খ) মহিলারা কি চুল কাটতে পারবে? নাকি যত লম্বাই হোক রাখতে হবে? জানাবেন প্লীজ৷
উত্তর
(ক) পুরুষদের জন্য বাবরী চুল রাখা সুন্নাত। কেননা, রাসূলুুল্লাহ (সা.) এর সাধারণ অভ্যাস ছিল বাবরী চুল রাখা। তা তিন পদ্ধতিতে হতে পারে।
এক.
উভয় কাঁধ বরাবর।
দুই.
ঘাড়ের মাঝামাঝি।
তিন.
উভয় কানের লতি পর্যন্ত। সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-৪১৮৩-৪১৮৭৷
রাসূলুুল্লাহ (সা.) এহরাম থেকে হালাল হওয়ার জন্য মাথা মুণ্ডাতেন। এছাড়া তিনি কখনো মাথা মুণ্ডাননি। এ সময় তিনি মাথা মুণ্ডানোকে চুল ছোট করে রাখার উপর
প্রাধান্য দিয়েছেন। এজন্য ইমাম তাহতাবী (রহ:) বলেন, মাথা ন্যাড়া করাও সুন্নাত ।
আর কিছু অংশ মুণ্ডানো ও কিছু রেখে দেয়া নিষেধ মুণ্ডাতে ইচ্ছে না করলে চুল ছোট রাখা যেতে পারে।
আলেমগণ তিন তরিকায় বাবরী রাখাকে সুন্নাত আর মাথার চুল ছোট করে রাখা বা মুণ্ডানোকে জায়েয বলেন। এছাড়া সামনে বা পেছনে লম্বা রাখা অথবা ডানপাশে বা বামপাশে ছোট-বড় করে রাখাকে জায়েয মনে করেন না। এক্ষেত্রে লক্ষণীয় বিষয় হল, চুলের যে কাটিং ভিন্ন কোন জাতি সত্তার অনুকরণে হবে, তাই নাজায়েযের মধ্যে শামিল হবে।
মাহমুদিয়া – ২৭/৪৬০, মিশকাত- ৩৮১, ২৩২, ৩৮০
(খ) মেয়েদের জন্য চুল মুণ্ডন করা বা কেটে ছেলেদের মতো করে ফেলা নিষেধ। আবার এতো বড় রাখা উচিত নয় যে, গোছলের সময় পানি পৌঁছানো কষ্টকর হয়। বরং পিঠ বা কোমর পর্যন্ত রাখা ভালো। সেমতে কোমরের নিচের অংশ কেটে ফেলা জায়েয হবে। অবশ্য না কাটলেও কোনো সমস্যা নেই।
তিরমিজি শরিফ ১/১৮২, মুসলিম শরিফ ১/১৪৮৷ মুফতী মেরাজ তাহসীন মুফতীঃ জামিয়া দারুল উলুম দেবগ্রাম ব্রাক্ষণবাড়িয়া
01756473393
ফতোয়া নং: ৩২৬২
তারিখ: ১/৮/২০১৫
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

খতনা করার হুকুম কী? কত বছর বয়সে খতনা করানো উত্তম?...

প্রশ্ন
খতনা করার হুকুম কী? কত বছর বয়সে খতনা করানো উত্তম? আমাদের এলাকায় এক লোক নতুন মুসলমান হয়েছে। তার বয়স ৩৫। তার খতনার বিধান কী? অনেকে ছেলের খতনা করিয়ে লোকজনকে দাওয়াত করে খাওয়ায় এটা কেমন? এ ধরনের দাওয়াতে অংশগ্রহণ করা যাবে কী? অনুগ্রহ করে জানালে কৃতজ্ঞ হব।
উত্তর
খতনা করা গুরুত্বপূর্ণ সুন্নত। এটি শিআরে ইসলাম অর্থাৎ ইসলামের মৌলিক নিদর্শনের অন্তর্ভুক্ত। নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ফিতরাত (তথা নবীগণের সুন্নত) পাঁচটি : খতনা করা, নাভীর নিচের পশম পরিষ্কার করা, বগলের পশম উঠানো, মোঁচ ছোট করা এবং নখ কাটা।-সহীহ বুখারী, হাদীস : ৬২৯৭ শারীরিকভাবে শক্ত- সামর্থ্যবান হওয়ার পরই সুবিধাজনক সময় ছেলের খতনা করিয়ে দেওয়া অভিভাবকের দায়িত্ব। আর কোনো কারণে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে যদি খতনা না করা হয় অথবা বয়স্ক হওয়ার পর কেউ ইসলাম গ্রহণ করে তাহলেও তার খতনা করা জরুরি। অতএব প্রশ্নোক্ত নবমুসলিমকেও খতনা করে নিতে হবে। ইবনে শিহাব যুহরী রাহ. বলেন, কোনো ব্যক্তি যখন ইসলাম গ্রহণ করত তখন সে বড় হলেও তাকে খতনা করার আদেশ করা হত। -আলআদাবুল মুফরাদ, হাদীস : ১২৫২ খতনার উত্তম সময়ের ব্যাপারে ফকীহগণ বলেন, শিশুর শারীরিক উপযুক্ততা ও তার বালেগ হওয়ার কাছাকাছি বয়সে পৌঁছার আগেই বা এর মাঝামাঝি সময়ে যেমন, ৭-১০ বছর বা অনুর্ধ্ব ১২ বছরের মধ্যে করে নেওয়া উত্তম। আর খতনা উপলক্ষ্যে কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করার প্রমাণ নেই। তাছাড়া বর্তমানে যে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের রেওয়াজ শুরু হয়েছে তা অবশ্যই বর্জনীয়। এছাড়া এতে গান-বাদ্য ইত্যাদি শরীয়তবিরোধী কোনো কিছু থাকলে তা তো সম্পূর্ণ নাজায়েয হবে। -ফাতহুল বারী ১১/৯২, ৯/৫০৩, ১০/৩৫৫, ৪/৪১৩; রদ্দুল মুহতার ৬/৭৫১-৭৫২, ৬/২৮২; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ২/১৩২; আলবাহরুর রায়েক ৭/৯৫-৯৬
ফতোয়া নং: ৩২৩৬
তারিখ: ১/৮/২০১৫
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

আমি জানতে চাই যে, শরিয়তে মহিলাদের চুল রাখার সুন্নত পদ্ধতি...

প্রশ্ন
আমি জানতে চাই যে, শরিয়তে মহিলাদের চুল রাখার সুন্নত পদ্ধতি কী? অর্থাৎ অনেকের চুল কোমর ছাড়িয়ে যায়। তাই তারা কি এখন পুরোটাই রাখবেন, না হয় কী করবে?
উত্তর
মেয়েদের চুল মুণ্ডন করা বা কেটে ছেলেদের মতো করে ফেলা নিষেধ। আবার এতো বড় রাখা উচিত নয় যে, গোছলের সময় পানি পৌঁছানো কষ্টকর হয়। বরং পিঠ বা কোমর পর্যন্ত রাখা ভালো। সেমতে কোমরের নিচের অংশ কেটে ফেলা জায়েয হবে। অবশ্য না কাটলেও কোনো সমস্যা নেই।
[তিরমিজি শরিফ ১/১৮২, মুসলিম শরিফ ১/১৪৮]

ফতোয়া নং: ২৮৬৭
তারিখ: ১/৪/২০১৫
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

সড়ক দুর্ঘটনায় আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেবের ডান পায়ের গোড়ালি ভেঙ্গে...

প্রশ্ন
সড়ক দুর্ঘটনায় আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেবের ডান পায়ের গোড়ালি ভেঙ্গে যায়। তিনি দু সপ্তাহ ছুটিতে ছিলেন। গত সপ্তাহে তিনি মসজিদে আসেন এবং না দাঁড়িয়ে মিম্বরে বসেই খুতবা দেন। অথচ সেই স্থানে দাঁড়িয়ে খুতবা দেওয়ার মতো আলেম বিদ্যমান ছিলেন। এ অবস্থায় খতিব সাহেবের জন্য কি বসে খুতবা দেওয়া ঠিক হয়েছে? বসে খুতবা দেওয়ার হুকুম কি? দাঁড়িয়ে খুতবা দেওয়া কি জরুরি? বিস্তারিত জানালে উপকৃত হব।
উত্তর
দাঁড়িয়ে খুতবা দেওয়া সুন্নত। বিনা ওজরে বসে খুতবা দেওয়া মাকরূহ। হাদীস শরীফে এসেছে, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাঁড়িয়ে জুমআর খুতবা দিতেন এবং উভয় খুতবার মাঝে সামান্য পরিমাণ সময় বসতেন। -সহীহ মুসলিম, হাদীস
: ৮৬১
অবশ্য ওজরের কারণে বসে খুতবা দেওয়ার অবকাশ আছে। হযরত মুআবিয়া রা. শেষ বয়সে বসে খুতবা দিয়েছেন বলে প্রমাণিত আছে। তাই উপরোক্ত ওজরের কারণে খতিবের জন্য বসে খুতবা দেওয়া নাজায়েয হয়নি। -মুসান্নাফে আব্দুর রাযযাক; ৫২৫৯; বাদায়েউস সানায়ে ১/৫৯২; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১৪৬; আলবাহরুর রায়েক ২/১৪৭
ফতোয়া নং: ২৮২২
তারিখ: ১/৪/২০১৫
বিষয়: সু্ন্নাহ-বিদআত

মোজার উপর কতটুকু মাসেহ করা ফরয? মাসেহের পদ্ধতি বিস্তারিত জানালে...

প্রশ্ন
মোজার উপর কতটুকু মাসেহ করা ফরয? মাসেহের পদ্ধতি বিস্তারিত জানালে উপকৃত হব।
উত্তর
মোজার উপর হাতের তিন আঙ্গুল পরিমাণ মাসেহ করা ফরয। আর মাসেহর সুন্নত পদ্ধতি হল, প্রথমে উভয় হাতের আঙ্গুলগুলো পানিতে ভিজিয়ে নিবে।
এরপর ডান হাতের আঙ্গুলগুলোর অগ্রভাগ ডান মোজার উপর পায়ের আঙ্গুল বরাবর এবং বাম হাতের আঙ্গুলগুলোর অগ্রভাগ বাম মোজার
উপর পায়ের আঙ্গুল বরাবর সামান্য ফাঁকা করে রাখবে। অতপর উভয় হাতের আঙ্গুলগুলো পায়ের নলা পর্যন্ত টেনে নিবে।
-ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৩৩; বাদায়েউস সানায়ে ১/৮৭; আলমুহীতুল বুরহানী ১/৩৪০; আলবাহরুর রায়েক ১/১৭৩; শরহুল মুনইয়া ১০৯; আদ্দুররুল মুখতার ১/২৭২

Execution time: 0.01 render + 0.00 s transfer.